Breaking News

টাঙ্গাইলে তিনশ গ্রাহকের ৩ কোটি টাকা নিয়ে উধাও এনজিও

সাইদুর রহমান সমীর, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি:শুক্রবার ১৭ ফেব্রুয়ারি সকালে টাকা ফেরত পেতে উপজেলার গালা গ্রামে ওই সংগঠনের কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে গ্রাহকরা।

জানা যায়, টাঙ্গাইল সমবায়ের রেজিস্ট্রেশন প্রাপ্ত সোসাইটি ফর হিউম্যান ইউনিটি এন্ড রিসোর্সেস ইউটিলাইজেশন (শুরু), যার রেজিস্ট্রেশন নম্বর ১৬১২। ২০১০ সালের দিকে গালা গ্রামের মাজেদুর রহমান, আবু সাইদ, আব্দুর রাজ্জাকসহ কয়েকজনে মিলে ‘শুরু’ নামের সংগঠনটি প্রতিষ্ঠা করেন। এর পর থেকে সংগঠনটি গালা বাজারে কার্যক্রম শুরু করে।


সমবায় অধিদপ্তর থেকে রেজিস্ট্রেশন নিয়ে আর্থিক লেনদেন পরিচালনা করার নিয়ম না থাকলেও শুরু থেকেই তারা আর্থিক লেনদেন পরিচালনা করে আসছিল। আর্থিক লেনদেন পরিচালনাকারী অনুমোদন প্রদানকারী সংস্থা মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরি অথোরিটি (এমআরএ) এর অনুমোদন ছাড়াই তারা এই আর্থিক লেনদেন পরিচালনা করছিল। তারা এলাকার মানুষকে বিভিন্নভাবে এই সংগঠনে টাকার রাখার জন্য উদ্বুদ্ধ করতে থাকে। একপর্যায়ে তারা গ্রাহকের প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকা নিয়ে উধায় হয়ে যায়।

এই ঘটনায় মানববন্ধন করেছে ভুক্তভোগী গ্রাহকেরা। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, ওই এনজিও’র সদস্য তারেক হাসান, আলী আহম্মদ, জয়নু বেগম, অঞ্জনা বেগম প্রমুখ।

ভুক্তভোগীরা বলেন, গ্রামের মধ্যবিত্ত, নিরীহ কৃষক থেকে শুরু করে দিন মজুররাও এই সংগঠনে টাকা রাখেন। এমননি অনেক প্রবাসীরাও টাকা রেখেছেন। প্রায় তিন শতাধিক গ্রাহকের প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকা নিয়ে এনজিও’র নির্বাহী পরিচালক মাজেদুর রহমান উধাও হয়ে গেছে। আমাদের কষ্টের অর্জিত টাকা ফেরত পেতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন ভুক্তভোগী গ্রাহকরা।


এ বিষয়ে শুরু এনজিও’র নির্বাহী পরিচালক মাজেদুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।

Type and hit Enter to search

Close