Breaking News

বাবুকে বিয়ে করে নোয়াখালীতে মিশরের তরুণী

প্রেমের টানে নোয়াখালীতে এসেছেন মিশরীয় তরুণী ডালিয়া (২৬)। তিনি ভালোবেসে বিয়ে করেছেন নোয়াখালী জেলার সেনবাগ উপজেলার গোলাম সারোয়ার বাবুকে (২৬)।

বৃহস্পতিবার (২০ অক্টোবর) সন্ধ্যায় মিশরীয় তরুণী ডালিয়া সেনবাগের নবীপুরে আসেন। বিদেশি ওই বধূকে দেখতে ভিড় করছেন এলাকার মানুষ।

চাকরির সুবাদে ২০১২ সালে মিশরে পাড়ি জমান নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার নবীপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড গোবিন্দপুর গ্রামের গোলাম মাওলার ছেলে গোলাম সারোয়ার বাবু। ২০১৭ সালে তাদের মধ্যে পরিচয় ও মন দেয়া-নেয়া হয়। পরিবারের মতে ২০২০ সালের জানুয়ারিতে বিয়ে করে এ জুটি। তবে তারপর দেশে ফেরা হয়ে ওঠেনি বাবুর।

বৃহস্পতিবার (২০ অক্টোবর) রাতে বাংলাদেশে নিজ বাড়িতে আসেন বাবু। সঙ্গে নিয়ে আসেন মিশরীয় স্ত্রী ডালিয়া দিয়াত দ্বীপকে। এমন খবরে শুক্রবার (২১ অক্টোবর) সকাল থেকে তার বাড়িতে ডালিয়াকে এক নজর দেখতে ভিড় করতে থাকে লোকজন।বাবুর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, পরিবারের বড় ছেলে হওয়ায় জীবন-জীবিকার তাগিদে ২০১২ সালে মিশর যান গোলাম সারোয়ার বাবু। পরবর্তীতে মিশরের আলেকজান্দ্রিয়া এলাকার একটি গার্মেন্টসে চাকরি নেন বাবু। এ সময় ডালিয়াদের পাশের বাসায় থাকতেন বাবু। পাশাপাশি বাসায় হওয়ায় ডালিয়ার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে তার।

এরপর ২০১৯ সালে তাদের মধ্যে আংটি বদল ও ২০২০ সালের জানুয়ারি মাসের ২০ তারিখে তাদের বিয়ে হয়। ২০২১ সালে তাদের একটি সন্তান জন্ম নিলেও মারা যায়।

বাবু বলেন, ডালিয়ার সঙ্গে বিয়ের পর প্রথম এ দেশে আসা। বর্তমানে সুখে-শান্তিতে দিন কাটাচ্ছেন তারা। বিদেশী পুত্রবধূকে কাছে পেয়ে শ্বশুর-শাশুড়িসহ পরিবারের সদস্যরাও খুশি।

কিছুটা বাংলা বলতে পারা ডালিয়া বলেন, বাংলাদেশি খাবার এবং পরিবেশ তার ভালো লাগে। এটা তার স্বামীর দেশ। এ দেশকে তিনি ভালোবাসেন। আগামী দুই মাস এখানে থেকে আবার মিশর যাবেন তারা, এরপর থেকে সুযোগ পেলেই দেশে আসবেন বলেও জানান এ মিশরী বধূ।

স্থানীয় ইউপি সদস্য কামরুজ্জামান মিরন বলেন, দেশে আসার পর থেকে বাবুদের বাড়িতে ভিড় লেগে আছে। এতে করে যেন কোন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা না ঘটে তার জন্য আমরা পরিবারটির দেখাশুনা করছি। সবসময় তাদের সঙ্গে যোগাযোগও রাখা হচ্ছে।

Type and hit Enter to search

Close