ছাত্রদ‌লের কেন্দ্রীয় সম্পাদক অপহরণ মামলার আসামি

 

সদ্য‌ ঘোষণা করা জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক সাইফ মোহাম্মদ জুয়েলের বিরুদ্ধে অপহরণ মামলাসহ একাধিক অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে। 


জুয়েল দুটি অপহরণ মামলার আসামি বলে জানা গেছে। নিউমার্কেট থানায় দায়ের করা একটি মামলা অনুযায়ী, ছাত্রদলের ঢাবির শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউট কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক কবিরকে অপহরণ করেন তিনি। উল্লেখিত মামলায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী জুয়েলকে গ্রেপ্তার ক‌রে এবং চার মাস কারাভোগ করেন জুয়েল। সেই মামলাটি এখনও বিচারাধীন র‌য়ে‌ছে।

অন্য‌দি‌কে, ২০১১ সালে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের মীর মোশাররফ হোসেন হলে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মারামারির সময় ছাত্রলীগের পলাশ-জিহান গ্রুপের প‌ক্ষে জুয়েল ভাড়াটে সন্ত্রাসী হিসেবে অংশ নেন এবং সেসময় বিশ্ব‌বিদ্যাল‌য়ের সাধারণ শিক্ষার্থীদের ল্যাপটপ-মোবাইল এসব ছিনিয়ে নিয়ে আসেন বলে তার বিরু‌দ্ধে অভিযোগ রয়েছে। তৎকালীন জাবি ছাত্রদলের সভাপতি এ ঘটনার সত্যতা দাবি করেছেন।


এ ছাড়াও অভিযোগ রয়েছে, ওয়ান ইলে‌ভে‌নের সময় ছাত্রদলের তৎকালীন সংস্কারপন্থী নেতা সাঈদ ইকবাল টিটুর অনুসারী হয়ে মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান হলের গেস্টরুম থেকে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান, বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের ছবি নামিয়ে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় জুয়েল সরাসরি অংশ নি‌য়ে‌ছেন। ওই ঘটনা সম্পর্কে তৎকালীন ছাত্রদলের দ্বায়িত্বশীল সব নেতাই অবগত রয়েছেন বলে জানা গেছে।

এরপর ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর প্রায় ছয় মাস হলে থেকে তৎকালীন জুয়েল- মিঠু গ্রুপের হয়ে ছাত্রলীগের কর্মকাণ্ডে সক্রিয়ভাবে অংশ নেন জুয়েল। পরে তার বিরু‌দ্ধে মোবাইল ছিনতাইয়ের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়া সাপেক্ষে তা‌কে হল থেকে বের করে দেওয়া হয়। এরপর ধীরে ধীরে ছাত্রদলের রাজনীতিতে যুক্ত হতে থাকেন জু‌য়েল। 


এরকম বি‌ভিন্ন ঘটনায় বিতর্কিত একজনকে ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদ‌কের ম‌তো গুরুত্বপূর্ণ পদ দেওয়ায় ক্ষোভ জানিয়েছেন দলটির নেতাকর্মীরা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলের একাধিক নেতাকর্মী জানান, দলের জন্য ত্যাগী ও জাতীয়তাবাদের আদর্শের পরীক্ষিত নেতাকর্মীকে শীর্ষ পদে পদায়ন না করে বিতর্কিত একজনকে সম্পাদক বানানো হয়েছে। এতে শুধু দলের নয় বরং জাতীয়তাবাদী আদর্শের ওপর আঘাত হানা হয়েছে।


ক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা অবিলম্বে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সংসদ থেকে এই নেতার পদ বাতিলের দাবি জানিয়েছেন। অভিযোগের বিষয়ে জানতে সাইফ মোহাম্মদ জুয়েলের ফোনে একাধিকবার কল কর‌লেও  তার ফোন বন্ধ থাকায় যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

buttons=(Accept !) days=(20)

Our website uses cookies to enhance your experience. Learn More
Accept !
To Top