বৃহস্পতিবার, ১৩ জানুয়ারী, ২০২২

টাঙ্গাইলে বিদ্যালয়ের ছাদে ৭ম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ

টাঙ্গাইলের গোপালপুরে সপ্তম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর জানা গেল সে প্রায় পাঁচ মাস আগে ধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন। এ ঘটনায় তার প্রেমিক দশম শ্রেণির ছাত্র রাকিব হাসানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। পরে তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) দুপুরে অভিযুক্ত রাকিব হাসানকে টাঙ্গাইল আদালতে তোলা হয়। রাকিব হাসান গোপালপুর উপজেলার হাটবৈরান মধ্যপাড়ার জয়নাল আবেদীনের ছেলে। 

সে পৌর এলাকার খন্দকার আসাদুজ্জামান একাডেমির ছাত্রজানা গেছে, রাকিব ওই ছাত্রীর সঙ্গে প্রথমে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। পরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে পাঁচ মাস আগে স্কুলের ছাদে নিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করে। লোকলজ্জার ভয়ে ওই ছাত্রী প্রথমে বিষয়টি কাউকে বলেনি। পরে সে অন্তঃসত্ত্বা হলে বিষয়টি পরিবারকে জানায়। এ ঘটনায় মেয়ের বাবা বাদী হয়ে গত মঙ্গলবার রাতে গোপালপুর থানায় ধর্ষণ মামলা করেন। পুলিশ রাতেই রাকিবকে গ্রেপ্তার করে।

এ বিষয়ে গোপালপুর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোশারফ হোসেন আরটিভি নিউজকে বলেন, মামলার পর বুধবার একমাত্র আসামি রাকিব হাসানকে গ্রেপ্তার করা হয়। বৃহস্পতিবার আদালতে তোলা হলে বিচারক তাকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। ইতোমধ্যে ওই মেয়ের ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে।
(আরটিভি অনলাইন)

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন ভিউ