শনিবার, ৮ জানুয়ারী, ২০২২

আশুলিয়ায় ডিবি পুলিশ পরিচয়ে সখীপুরের মালেক মিয়ার প্রাইভেটকার ছিনতাই

আশুলিয়ায় ডিবি পুলিশ পরিচয়ে টাঙ্গাইলের সখীপুরের আ. মালেক মিয়ার একটি প্রাইভেটকার ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে।

গত (২৫ ডিসেম্বর) রাত সাড়ে ১২ টার দিকে বাইপাইল-আব্দুল্লাহপুর মহাসড়কের জিরাব পুলিশ বক্সের কাছে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় অজ্ঞাতনামাদের আসামী করে আশুলিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে ভুক্তভোগী গাড়ির চালক ও মালিক আ. মালেক মিয়া (৩৫)। মালেক উপজেলার কাকড়াজান ইউনিয়নের হামিদপুর এলাকার দুলাল মিয়ার ছেলে।

ভুক্তভোগী আ. মালেক মিয়া জানান, প্রতিদিনের মতো গত ২৫ ডিসেম্বর রাতে ঢাকা বিমানবন্দর থেকে যাত্রী নিয়ে সখীপুরের উদ্দেশ্যে রওনা দেই। যাওয়ার পথে রাত সাড়ে ১২টার দিকে বাইপাইল-আব্দুল্লাহপুর মহাসড়কের জিরাব পুলিশ বক্সের কাছে পৌঁছালে ট্রাফিক পুলিশের পোশাক পরিহিত একজন সিগনাল দেয়। এতে সন্দেহ হলে গাড়ি না থামিয়ে সামনের দিকে যেতে থাকি। এসময় পিছন থেকে একটি হাইচ প্রাইভেটকারের সামনে এসে গতিরোধ করে। পরে ওরা ডিবি পুলিশের পোশাক পড়ে গাড়ির কাগজপত্র দেখতে চায়। কাগজপত্র বের করে দিলে গাড়ি তল্লাশি করার কথা বলে জোর করে আমাকে তাদের গাড়িতে তুলে। পরে চোখ ও হাত-পা বেঁধে মারধর করে প্রাইভেটকারটি নিয়ে পালিয়ে যায়।
 
তিনি আরও বলেন, সারাজীবনের কষ্টের অর্জিত টাকা দিয়ে গাড়িটি দেড় বছর আগে কিনেছি। এখনও অনেকেরই ধারের টাকা পরিশোধ হয়নি। এরই মধ্যে গাড়িটি ছিনতাই হয়ে গেলো। এখন আমি কি করবো?

সাথে থাকা প্রবাসী যাত্রী আমিনুল ইসলাম জানান , আমি ঋণ করে প্রবাসে গিয়েছিলাম। ছুটিতে দেশে আসার সময় ভয়াবহ এক ছিনতায়ের ঘটনার মুখোমুখি হয়েছি। ওই দিনের কথা কখনও ভুলতে পারছিনা। ওরা আমাদের মারধর করে নগদ টাকা এবং স্বর্ণলষ্কারসহ গাড়িটি ছিনিয়ে নেয়।

এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জোহাব আলী জানান, ছিনতাইকৃত গাড়িটি উদ্ধারে বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে। ঘটনার সঙ্গে কে বা কারা জড়িত তা খুঁজে বের করে দোষীদের আইনের আওতায় আনা হবে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন ভিউ